Follow us on

কালবৈশাখীর আঁচলের তলায় শান্তির ঘুম পাড়ায় আমার কলকাতা

‘সর্ব ধর্ম সমন্বয়’, এই বিখ্যাত উক্তিটি আমরা সবাই জানি। কলকাতায় কিন্তু এই সর্ব ধর্ম সমন্বয় সত্যিই দেখা যায়। সব ধর্মের মানুষ একই সঙ্গে দোল, ঈদ, বড়দিন পালন করে।

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়
কলকাতা| ২৮ জানুয়ারি, ২০২০, ১১:৩৩ শেষ আপডেট: ২৮ জানুয়ারি, ২০২০, ০৪:৫৫
‘আমি বলি কলকাতা প্যাশনের শহর’

‘আমি বলি কলকাতা প্যাশনের শহর’। এই ডায়লগটা আমি শুধু বলার জন্য বলিনি। এটা আমার বিশ্বাস। আসলে প্যাশন, এই শব্দটা খুব আপেক্ষিক। সবার কাছে প্যাশনের এক একটা আলাদা মানে। আর সেই সব মানে, সেই সব স্বপ্নকে দু-হাতে হাসিমুখে আগলে রাখে আমার শহর,কলকাতা।

বিদেশ গেছি শুটিংয়ের জন্য। বরাবরই ফেরার সময় প্লেনে উঠলে আমার বুকটা ধুকধুক করে। বিশেষত‌ টেকঅফ আর ল্যান্ডিংয়ের সময়। হঠাত্ জানলা দিয়ে টিমটিম করে জ্বলতে থাকা একটা শহর চোখে পড়ে আর কানে আসে পাইলটের অ্যানাউন্সমেন্ট। ঠিক তখনই যেন মিষ্টি একটা গন্ধ পাই। এটাই আমার শহর, এটাই আমার কলকাতা। নানাবিধ ব্যস্ততার মাঝেও যে শহরের একটা নিজস্ব গন্ধ আছে আজও।

ছোট থেকে বড় হয়ে ওঠা। স্টার থিয়েটার থেকে টালিগঞ্জ, সবটাই ঘিরে আছে এই শহর। উত্তর কলকাতার গলি থেকে আজকের শপিং মল। কলকাতাও ছোট্ট ছোট্ট পায়ে এগিয়ে গেছে। কিন্তু আমার মনে হয়, এই বড় হয়ে ওঠা সত্ত্বেও আমার শহর এখনও ভালবাসতে ভোলেনি। চিঠি লেখা থেকে হোয়াটস্অ্যাপ করা, সবটার মাঝেও কলকাতা নিজস্বতা বজায় রেখে গেছে।

আরও পড়ুন: কলকাতা, ভেবে দেখো যাবে কি না আমার সাথে​

দুর্গাপুজোর সময় শিউলি ফুলের গন্ধ পাই শহরের বুকে

‘সর্ব ধর্ম সমন্বয়’, এই বিখ্যাত উক্তিটি আমরা সবাই জানি। কলকাতায় কিন্তু এই সর্ব ধর্ম সমন্বয় সত্যিই দেখা যায়। সব ধর্মের মানুষ একই সঙ্গে দোল, ঈদ, বড়দিন পালন করে। কলকাতায় এখনও মহম্মদ আলি পার্কে দুর্গাপুজোর মন্ত্রোচ্চারণ শোনা যায়। আমি বার বার বলি, আজকাল মানুষেরা বড্ড অধৈর্য হয়ে উঠছে। তবে এত অশান্তি, এত অধৈর্যের মধ্যেও কলকাতা তার ধৈর্য হারায় না। কথাটা শুনতে একটু অন্য রকম লাগলেও এটা সত্যি। হাজার ঝামেলার মধ্যেও কলকাতা ঠিক নিজের গতিতে চলতে পারে। বিখ্যাত কবি ফাল্গুনী রায়ের দুটো লাইন আমার খুব পছন্দের,

‘এইখানে সমুদ্র ঢুকে যায় নদীতে নক্ষত্র মেশে রৌদ্রে

এইখানে ট্রামের ঘণ্টীতে বেজে চলা ও থামার নির্দেশ

আরও পড়ুন:বেড়ে ওঠা থেকে কাজ... আমার জীবন ঘিরে শুধুই কলকাতা

কলকাতার সৌন্দর্য নিয়ে আলাদা ভাবে আমায় কিছু লিখতে হলে সেটা নির্দিষ্ট শব্দের মধ্যে শেষ করা একটু কঠিন। কারণ, কলকাতার সবটাই সুন্দর আমার কাছে। বৃষ্টির সোঁদা মাটির গন্ধ আজও আমি পাই কংক্রিটের রাস্তায়। দুর্গাপুজোর সময় শিউলি ফুলের গন্ধ পাই শহরের বুকে। শীতকালে উষ্ণতা দেয় আমায় আমার শহর। আর গ্রীষ্মের দহনে কালবৈশাখীর আঁচলের তলায় শান্তির ঘুম পাড়িয়ে দেয় আমার শহর কলকাতা। আসলে কলকাতা আমার কাছে আমার মায়ের মতো সুন্দর। আমার মায়ের মতো ভাল। যার কোলে আমি আজও শান্তির ঘুম ঘুমোই।

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে পেতে
Read our Email Policy Here
bbb
আরও পড়ুন