Follow us on

বিয়েবাড়ি বা পার্টি, কেমন হবে আপনার সাজপোশাক? রইল বিশেষজ্ঞের টিপস্

তবে আজকাল পার্টি মানেই পশ্চিমী পোশাক, এমন নয় কিন্তু!  যেখানে কোনও ড্রেস কোড নেই, সেখানে অবশ্যই ফ্যাশন করতে পারেন ইন্দো-ওয়েস্টার্ন জড়িয়ে।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা| ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ০৬:৩৫ শেষ আপডেট: ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ০৬:৪৭
শাড়ির সঙ্গে পরে ফেলুন ডিজাইনার ক্রপ টপ। ছবি: সোশ্যাল মিডিয়া।

ফাল্গুনেও বিয়েবাড়ির মরসুম শেষ হয় না। কলকাতার বসন্তে সাজেও আসে ফারাক। শীতের কয়েকটা দিন মেক আপ ঘাঁটার কোনও ভয় নেই। আপনার মন চাইলেই খোলা চুলেও নিজের সাজ সারতে পারেন। কিন্তু বসন্তে আবহাওয়া বদলায়। অল্পস্বল্প ঘামও হতে পারে। তাই সাজেও খানিক নতুনত্ব আনতে হবে বইকি!

পশ্চিমী পোশাক পরতে কেউ কেউ ততটা স্বচ্ছন্দ নন। তবে আজকাল পার্টি মানেই পশ্চিমী পোশাক, এমন নয় কিন্তু!  যেখানে কোনও ড্রেস কোড নেই, সেখানে অবশ্যই ফ্যাশন করতে পারেন ইন্দো-ওয়েস্টার্ন জড়িয়ে।

যেমন, অফিসের পার্টিতে একটা প্যাস্টেল রঙের সিল্কের শাড়ি পরেও হতে পারেন শো স্টপার! এমন রং পরুন যা আপনার কমপ্লেকশনকে আরও সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলবে। সঙ্গে পরে ফেলুন আফগানি মোটিফের সেট। রুপোর গয়না ভালবাসলে গলায় পরে ফেলুন একটা লম্বা নেকপিস, হাতে একটা বালা, আঙুলে একটা ওভারসাইসড আংটি। কানে দুল না পরলেও ক্ষতি নেই।

 দিনের বেলায় পার্টি হলে এই ধরনের রোজ গোল্ড আইশ্যাডো ব্যবহার করতেই পারেন।

বিয়েবাড়ির পোশাকে জমকালো কারুকাজ থাকলে দেখতে ভাল লাগে। সে ক্ষেত্রে আপনার পছন্দের তালিকায় থাকতেই পারে উজ্জ্বল শেডের শাড়ি, শালোয়ার কিংবা ইন্দো-ওয়েস্টার্ন। পরতে পারেন লাল-মেরুনের নানা ভ্যারিয়েশন। সেই সঙ্গে মিলিয়ে গয়নাও পরতে পারেন। সোনা, রুপো, মিনাকারি বা আনকাট ডায়মন্ডের গয়না ইন্দো-ওয়েস্টার্ন পোশাকের সঙ্গে খুব ভালো মানায়। পোশাকের সঙ্গে সাযুজ্য রেখেই গয়না পরুন। একগাদা গয়না পরে পুরো সাজটা মাটি করবেন না। শাড়ি পরার ধরনেও থাকতে পারে অভিনত্বের ছোঁয়া। আজকাল শাড়ির সঙ্গে অনেকেই পরে ফেলেন ডিজাইনার ক্রপ টপ। আবার দুটি আলাদা শাড়ি নিয়ে পড়ে ফেলতে পারেন লেহেঙ্গার মতো করে।

আপনার পোশাক আর গয়না যদি নজরকাড়া হয়, তা হলে মেকআপ আর হেয়ারস্টাইলের ক্ষেত্রে বাড়তি সাবধানতা অবলম্বন করুন। মেকআপ এমন হবে যা আপনার সৌন্দর্য বাড়িয়ে তোলে, ঢেকে দেয় চেহারার খুঁত।

মেকআপের বাড়াবাড়ি দেখতে মোটেই ভাল লাগে না। রূপবিশেষজ্ঞ শর্মিলা সিংহ ফ্লোরার মতে, মেকআপের আগে নিজের ‘ফেস রিডিং’ করাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। আপনার সাজ কেমন হবে তা একান্ত ভাবেই অকেশনটির উপর নির্ভর করবে। সাজ কখনই যেন উগ্র না হয়, সে বিষয় সতর্ক থাকুন। সাজে থাকতে হবে শোভা ও আভিজাত্যের পারফেক্ট ব্যালেন্স।

শাড়ি ড্রাপিং-এর এমন কায়দা এখন বেশ জনপ্রিয়।

চোখের মেকআপ করতে হবে নিঁখুত ভাবে। দিনের বেলায় পার্টি হলে গোল্ড, কপার গোল্ড, রোজ গোল্ড এই সব আইশ্যাডো ব্যবহার করতে পারেন। রাতের সাজের সঙ্গে স্মোকি আইস করলে বেশ ভাল মানায়। আজ কাল কাজল বা লাইনার পরার ক্ষেত্রেও নতুন সব টেকনিক ভীষণ ‘ইন’।  সেগুলিও ট্রাই করতে পারেন।

লিপস্টিকের ক্ষেত্রে মেটালিক শেডের বেশ রমরমা। আপনার পোশাকের সঙ্গে মানানসই হলে ফুশিয়া পিঙ্ক, টারকোয়িশ ব্লু, ব্রাউন, মেরুন এই রঙগুলি পরতেই পারেন। এখন আইল্যাস ব্যবহার করার চল খুব উঠেছে। তবে আপনার মুখের গড়নের সঙ্গে মানামসই আইল্যাস পরুন। খুব বড় মাপের আইল্যাস পরলে মোটেই ভাল লাগে না। বরং সাজ হয়ে যায় অনেক বেশি উগ্র।  

মেকআপ করলেই হবে না সঙ্গে চুলের বাঁধনেও রাখুন হালফ্যাশনের ছোঁয়া। মেসি বান সব ধরনের সাজ পোশাকের সঙ্গেই বেশ ভাল যায়। অনলাইলে এখন অনেক টিউটোরিয়াল পাবেন যা দেখে বাড়িতেই খুব সহজে নানা রকম হেয়ার স্টাইল বানিয়ে ফেলতে পারেন। বিনুনি করে অনেক ধরনের চুল বাঁধা যায়। তেমন কিছু স্টাইল করতে পারেন। চুল ভাল শেপে কাটা থাকলে তা সেট করে নিতে পারেন। এক দিনের জন্য চুল স্ট্রেট বা কার্লও করে নিতে পারেন। চুল খোলা রাখলে সঙ্গে অবশ্যই চিরুনি রাখতে হবে।

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে পেতে
Read our Email Policy Here
bbb
আরও পড়ুন